pytheya.blogspot.com Webutation

১৯ মার্চ, ২০১২

২য় রামেসিস: নবী মূসার জমানায় ফেরাউন কে ছিলেন?

মিসরের সিংহাসনে অধিষ্ঠিত ফেরাউন। হঠাৎ করে তিনি মৃত্যুবরণ করলেন। যে ব্যক্তি তার স্থলাভিষিক্ত হল, সে কিন্তু মিসরীয় ছিল না। তার প্রকৃত নাম কাবুস, জন্মস্থান- বলখ। যৌবণে সে ভাগ্যান্বেষণে বের হয়। একসময় সে বেউশাহমা শহরে এসে পৌঁছে।সেখানে এক ভবঘুরে যুবক হামানের সাথে তার সাক্ষাৎ হয়। দু‘জনের প্রকৃতি ও চরিত্র একই হওয়ায় তাদের মধ্যে দ্রুত সখ্যতা ও বন্ধুত্ব গড়ে উঠে।

মিসর নগরী
একসময় তারা ঘুরতে ঘুরতে মিসর রাজ্যে উপনীত হয়। এসময় দু‘জনের কারও কাছেই একটা কানাকড়িও ছিল না। খরবুজার মৌসুম। রাস্তার পাশে একটি ক্ষেতে সুপক্ক খরবুজা শোভা পাচ্ছে। মালিক ক্ষেতে মজুর দিয়ে কাজ করাচ্ছে। 

কাবুস ও হামান নিজেদের ক্ষুধার কথা বলে মালিকের কাছে একটি খরবুজা খেতে চাইল। মালিক বিরক্তির স্বরে বলল, ‘তোমরা সুস্থ্য সবল যুবক। চেয়ে খাচ্ছ কেন? কাজ করে খাবার চেষ্টা কর।’
তারা বলল, ‘এ মুহূর্তে আমরা কি কাজ করব?’
সে বলল, ‘আমার কিছু খরবুজা বাজারে নিয়ে বিক্রি করে দাও।’

দ্বিতীয় রামেসিস
কাবুস হামানকে ক্ষেতের মালিকের কাছে জামিনস্বরূপ রেখে খরবুজা নিয়ে বাজারে গেল। অল্পসময়ের মধ্যে সেগুলি বিক্রি করে এসে সে মালিককে মূল্য বুঝিয়ে দিল। মালিক সন্তুষ্ট হয়ে তাদেরকে দু‘টি খরবুজা খেতে দিল এবং শ্রমের মূল্য হিসেবে কাবুসকে কিছু অর্থও দিল। সাথে সাথে তাদেরকে স্থায়ীভাবে কাজে নিয়োগ করতেও চাইল। প্রস্তাবটি ভাল হলেও তারা এতে অসম্মতি জানিয়ে বিদায় নিল এবং মিসরের রাজধানী অভিমুখে রওনা দিল।

মিসর রাজ্য শাসন করছেন ফেরাউন। ইতিমধ্যে কাবুস জেনেছে তিনি প্রজাহিতৈষী, দয়ালু, ন্যায়পরায়ণ। একটি কাজের আশায় কাবুস ফেরাউনের সাক্ষাৎপ্রার্থী হল। যখন দরবারে তার ডাক পড়ল, সে ফেরাউনকে যথারীতি অভিবাদন করে বলল, ‘হে মহানুভব রাজ্যাধিপতি! কোন কাজকর্ম না থাকায় আমি আমার ভরণ-পোষণে অপারগ হয়ে পড়েছি। অনুগ্রহ করে আমার জন্যে একটি কাজের ব্যবস্থা করে দিন।’

দ্বিতীয় রামেসিস
কাবুসের বাচনভঙ্গি ও জড়তাহীন বাক্য ফেরাউনের দৃষ্টি ও মনোযোগ আকৃষ্ট করল। তিনি বললেন, ‘হে যুবক! কি কাজ তুমি জান?’
সে বলল, ‘হে আমার প্রভু! যে কোন কাজই আমি করতে পারব। তবে আমি জনসেবা মূলক কোন কাজ পেলে কৃতার্থ হব।’

ঐ সময়ই এক কর্মচারী খবর নিয়ে এল, রাজকবরস্থানের দায়িত্বে নিয়োজিত রাজকর্মচারী মৃত্যুবরণ করেছে। এ সংবাদ জানতে পেরে ফেরাউন বললেন, ‘তবে তোমাকে রাজ করবস্থানের ভার দেয়া হল।’

কাবুস ছিল সুচতুর ও তীক্ষ বুদ্ধির অধিকারী। কবরস্থানের কর্তৃত্বভার পাবার পরই সে নগরময় ঘোষণা করে দিল-এখন থেকে কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে কেউ কোন লাশ দাফন করতে পারবে না এবং প্রতিটি লাশ দাফনের জন্যে নির্দিষ্ট অঙ্কের অর্থ অর্থাৎ দাফন ফি প্রদান করতে হবে।’

রামেসিস (অধুনা তানিস) নগরী
ঐ বৎসরেই হঠাৎ নগরীতে মহামারী দেখা দিল। কাবুস লাশের আমদানী বেশী দেখে দাফন ফি দ্বিগুণ করে দিল। ফলে এ বাবদ অজস্র অর্থ আমদানী হতে লাগল। বৎসর শেষে কাবুস মোটা অঙ্কের অর্থ রাজকোষে জমা দিল। রাজকর্তৃপক্ষ সন্তুষ্ট হয়ে তাকে পদোন্নতি দিয়ে কোতওয়াল পদে নিয়োগ দিল। এসময় কাবুস প্রধান উজিরের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলল। আর নানারকম উপঢৌকন পেয়ে প্রধান উজির ফেরাউনের কাছে কোতওয়াল কাবুসের বিভিন্ন সাফল্য তুলে ধরতে লাগলেন।

প্রীতম (অধুনা কানতিরনগরী
হঠাৎ করে প্রধান উজির মৃত্যুবরণ করলেন। ফেরাউন পূর্ব থেকেই কোতওয়াল কাবুসের যোগ্যতার প্রতি আস্থাশীল ছিলেন। সুতরাং তিনি এই পদে অন্য কাউকে নিয়োগ না দিয়ে তাকেই নিয়োগ দিলেন। অচিরেই কাবুস তার যোগ্যতা ও বিচক্ষণতা প্রমান করতে সক্ষম হল।

দেশে কয়েক বৎসর যাবৎ খরা ও দুর্ভিক্ষ চলছে। প্রজাদের দুরাবস্থার কথা ভেবে কাবুস ফেরাউনের কাছে এই আবেদন তুলে ধরল, ‘হে ফেরাউন! কয়েক বৎসর ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগের দরুণ প্রজাসাধারণ অত্যন্ত দুরাবস্থার মধ্যে দিনাতিপাত করছে। আপনি মহানুভব, প্রজাহিতৈষী। সুতরাং আপনার পক্ষ থেকে এই বৎসর তাদের খাজনা মওকুফ করা হোক।’

রামেসিস  প্রীতম, (অধুনা তানিস ও কানতির)
ফেরাউন তার যুক্তি মেনে নিয়ে এক বৎসরের খাজনা মওকুফ করতে সম্মত হলেন। অতঃপর যখন সারা দেশে এ মর্মে একটি সরকারী ঘোষণা প্রচার করা হল, তখন সর্ব সাধারণ কাবুসের নামে ধন্য ধন্য করতে লাগল।

অত:পর হঠাৎ করে ফেরাউনের মৃত্যুতে তার সিংহাসনের কোন উত্তরাধিকারী না থাকায় উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের এক জরুরী বৈঠকে সর্বসম্মতভাবে প্রধান উজির কাবুসকে মনোনীত করে তাকে সিংহাসনে বসিয়ে দিল।

কাবুস সিংহাসনে উপবিষ্ট হয়ে প্রথমেই বন্ধু হামানকে তার প্রধান উজির পদে নিয়োগ দিলেন। অতঃপর পূর্ববর্তী এক প্রজাহিতৈষী শাসক রামেসিসের নাম ধারণ করে নিজেকে ফেরাউন ২য় রামেসিস হিসেবে ঘোষণা করলেন।

যতদিন পর্যন্ত ইউসূফ সরকারী পদে ছিলেন ও জীবিত ছিলেন ততদিন মিসরে ইস্রায়েলীদের অবস্থা খুব ভাল ছিল। তাদের ঘর, খাবার ও চাকুরী ছিল এবং তাদের প্রতি মিসরীয়রাও আন্তরিকপূর্ণ ব্যবহার করত। কিন্তু যতই দিন যেতে লাগল অবস্থারও পরিবর্তন হতে থাকল। মিসরীয়রা তাদেরকে বিদেশী হিসেবে বিবেচনা করতে লাগল। 

তানিস, কানতির ও পাই-রামেসিস।
অন্যদিকে ইয়াকুবের সময়ে মিসরে ইস্রায়েলীদের সংখ্যা যাই থাকুক না কেন দিনে দিনে এই সংখ্যা বৃদ্ধি পেল।  দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ এই যে, ‘বংশবৃদ্ধি ও পৃথিবী পরিপূর্ণ করাতে’ তাদের ধর্মীয় বিশ্বাস ছিল। পরবর্তীতে এই সংখ্যা বৃদ্ধিই তাদের কাল হল। 

তাছাড়া সিংহাসনে অধিষ্ঠিত নতুন এই শাসক ফেরাউন ২য় রামেসিস ইউসূফ সম্পর্কে কিছুই জানতেন না। তিনি ইস্রায়েলীদের সংখ্যা তাড়াতাড়ি বৃদ্ধির কারণে সরকারী নিরাপত্তার বিষয়ে রাজনৈতিক সমস্যা মনে করে আতঙ্কিত হলেন। সুতরাং 
তিনি আদেশ জারি করলেন যেন তারা জন্মের সময় কন্যা সন্তানদের বাঁচিয়ে রেখে পুত্র সন্তানদেরকে হত্যা করে ফেলে। কোরআন জানায়-


দেশে ফেরাউন ফেঁপে উঠেছিল অহংকারে; সে সেখানকার লোকদেরকে বিভিন্ন শ্রেণীতে ভাগ করেছিল। এক শ্রেণীকে নিপীড়ন করছিল তাদের পুত্রদের হত্যা করে ও কন্যাদের বাঁচিয়ে রেখে। নিঃসন্দেহে সে ছিল বিপর্যয় সৃষ্টিকারীদের একজন।-(২৮:৪)

আর এ জারিকৃত আদেশের কারণে ইস্রায়েলীরা যাতে কোন বিশৃংখলা সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্যে তাদেরকে দাসত্বের কাজে লাগানোর নুতন আরেক আদেশও জারি করে দিলেন। আর ঐ কাজে তাদেরকে বাধ্য করতে কঠোর লোক পরিচালনার জন্যে লাগান হল। 

ইস্রায়েলীদেরকে ইট তৈরী, পাথর কাটা ও বহন ইত্যাদি কাজে লাগান হয়েছিল এবং তাদের দ্বারাই ফেরাউন ২য় রামেসিস দু’টি নগরী, রামেসিস এবং প্রীতম, (অধুনা তানিস ও কানতির) উত্তরাঞ্চলের রাজধানী হিসেবে তৈরী করেছিলেন।

বি:দ্র: অবশ্য এটা ঠিক যে, “Qur'an does not mention the name of the Pharaoh who unjustly oppressed Moses and the Children of Israel. When combined, the information provided by the Qur'an and the ancient Egyptian sources including the archaeological and documentary evidence, there are a sufficient number of clues that point towards the New Kingdom period in general and to the Pharaoh Ramesses II in particular who reigned for about 66 years from 1279–1213 BCE.” -(The Identification Of Pharaoh During The Time Of Moses by M S M Saifullah, ʿAbdullah David and Mohammad Ghoniem.)

সমাপ্ত।

# A man asked me, "Bro, Pharaoh during Moses [Pharaoh, who raise Moses and Pharaoh during Exodus] was Ramesses- II, is this information correct?

@ I said, Logically and Scriptually this information is Correct. 

Proof-1
Pharaoh during Moses was Ramesses II and he is believed to be the same pharaoh of the exodus in 1270 BC on the basis of the information: 
"So they appointed taskmasters over them to afflict them with hard labor. And they built for Pharaoh (of the oppression) storage cities, Pithom and Raamses." Exodus 1:11 


and this is corrrect beecause, the Hebrews built the city of Raamses,and this Raamses must be Raamses II, because it is not escaped from our notice that Joseph lived in the "land of Rameses" 400 years before Ramesses II was born. Bible says:

"So Joseph settled his father and his brothers and gave them a possession in the land of Egypt, in the best of the land, in the land of Rameses, as Pharaoh had ordered." -Genesis 47:11. 

This means that Rameses- I predated Ramesses- II by 400 years.

Proof-2
মুসার সময় যে ফেরাউন ছিল তিনি ১৮তম রাজবংশের, কুরতুবী তার নাম 'কাবুস' বলে উল্লেখ করেছেন়।- bn.wikipedia.org/wiki/ইসলাম ধর্মে মূসা, [cite note-1]

Proof-3.
And for Rameses the answer hidden by this- sentence-“Now there arose up a new king over Egypt, which knew not Joseph” (Exodus 1:8) Then another king, who knew nothing of Joseph, arose over Egypt. (Acts 7:18)

সিংহাসনে অধিষ্ঠিত নতুন এই শাসক ফেরাউন ২য় রামেসিস ইউসূফ সম্পর্কে কিছুই জানতেন না। কেন জানতেন না? 

কারণ তিনি মিসরীয় ছিলেন না।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন