pytheya.blogspot.com Webutation

১০ মার্চ, ২০১২

Solomon: শলোমনের মৃত্যু এবং অত:পর।


প্রাসাদের নির্মাণ কাজ বাদশা শলোমন (Solomon) নিজেই দেখাশুনো করতেন। আর জ্বীনেরা তার সামনে বসে কাজ করত। তারা বাদশার ইচ্ছে অনুযায়ী প্রাসাদ, ভাস্কর্য, পানির হৌজের মত পাত্র ও চুল্লির জন্যে বড় ডেগ তৈরী করত। এই সকল কাজ করতে প্রচুর তামার দরকার হয়েছিল। শলোমন প্রয়োজনীয় তামা তার বেটহ ও বেরোথা নগর থেকে সংগ্রহ করতেন। সেখানে এত পরিমান তামা মজুদ ছিল, যেন তা এক গলিত তামার ঝর্ণা। এই তামা এসব বস্তু তৈরীর কাজে ব্যাবহৃত হত।  

শলোমন।
আল্লাহ বলেছিলেন, ‘হে দাউদ পরিবার! তোমরা কৃতজ্ঞতার সাথে কাজ করতে থাক।’
দাউদ, শলোমন ও তাদের পরিবারবর্গ মৌখিকভাবে ও কর্মের মাধ্যমে আল্লাহর এই আদেশ পালন করেছেন। তাদের গৃহে এমন কোন মুহুর্ত যেত যাতে পরিবারের কেউ না কেউ এবাদতে মশগুল না থাকত। পরিবারের লোকদের প্রত্যেকের জন্যে উপাসনার সময় ভাগ করা ছিল। 

লাঠিতে ভর দিয়ে সিংহাসনে বসা অবস্থায় শলোমনের মৃত্যু হয়। প্রাসাদের নির্মাণের কাজে নিয়োজিত জ্বীনেরা তা বুঝতে পারেনি। সেইসময় একটা ঘুণপোকা তার মৃত্যুর কথা জ্বীনদেরকে জানিয়ে দিল। কিন্তু তারা তা বিশ্বাস না করে কাজ করে যেতে থাকল। তখন ঘুণ পোকা শলোমনের ভর দিয়ে থাকা লাঠিটি কূরে খেতে থাকল। অত:পর যখন সে লাঠিটি কেটে ফেলল তখন শলোমনের দেহ ঢলে মাটিতে পড়ে গেল। তখনই জ্বীনেরা তার মৃত্যু সম্পর্কে নিশ্চিত হল। 

জ্বীনদের কাছে দুনিয়ার সময় অতি শ্লথ। তাই তারা আফসোস করে বলল, ‘যদি আমরা অদৃশ্য বিষয় জানতাম তাহলে আমরা এতকাল অপমানকর শাস্তিতে বাঁধা থাকতাম না।’

বাইবেল, কোরআন ও তালমুদ পুস্তকে শলোমনের মৃত্যু পূর্ববর্তী এমন ঘটনা লিপিবদ্ধ আছে -A few months after the death of the Queen of Saba, the Angel of Death appeared unto Solomon with six faces: one to the right, and one to the left; one in front, and one behind; one above his head, and one below it. The king, who had never seen him in this form, was startled, and inquired what this sixfold visage signified. 

"With the face to the right," replied the Angel of Death, "I fetch the souIs from the east; with that to the left, the souls from the west; with that above, the souls of the inhabitants of heaven; with that below, the demons from the depths of the earth; with that behind, the souls of the people of Madjudj and Jadjudj (Gog and Magog); but with that in front, those of the Faithful, to whom also thy soul belongs." -The Bible, the Quran, and the Talmud. page-245


এরপর শলোমন আজ্রাইলের নিকট থেকে কেয়ামত ও পুনরুত্থান দিবস সম্পর্কে অনেক কিছুই অবগত হলেন। অবশেষে বললেন, "Suffer me to live until the completion of my temple, for at my death the genii and demons will cease their labor." 
"Thy hour-glass has run out, and it is not in my power to prolong thy life another second."
"Then follow me to my crystal hall!"
  
The Angel of Death accompanied Solomon unto the hall, whose walls were entirely of crystal. There Solomon prayed; and, leaning upon his staff, requested the angel to take his soul in that position. The angel consented; and his death was thus concealed from the demons a whole year, till the temple was finished. 

It was not until the staff, when destroyed by worms, broke down with him, that his death was observed by the Jinns, who, in order to revenge themselves, concealed all kinds of magical books under his throne, so that many believers thought Solomon had been a sorcerer. But he was a pure and divine prophet, as it is written in the Koran, "Solomon was no infidel, but the demons were unbelievers, and taught all manner of sorceries." 


When the king was lying on the ground, the angels carried him, together with his signet ring, to a cave, where they shall guard him until the day of the resurrection.--
The Bible, the Quran, and the Talmud. page 248; Book of Chamis.

প্রাসাদের নির্মাণ কাজ তদারকিতে শলোমন।
কোরআনে রয়েছে- ‘আমি তার (শলোমনের) জন্যে গলান তামার এক ঝর্ণা বইয়ে ছিলাম। আল্লাহর অনুমতিক্রমে বেশকিছু জ্বীন তার সামনে কাজ করত।..ওরা শলোমনের ইচ্ছে অনুযায়ী প্রাসাদ, ভাস্কর্য, পানির হৌজের মত পাত্র ও চুল্লির জন্যে বড় ডেগ তৈরী করত। (আমি বলেছিলাম), ‘হে দাউদ পরিবার! তোমরা কৃতজ্ঞতার সাথে কাজ করতে থাক।’

যখন আমি শলোমনের মৃত্যু ঘটালাম তখন ঘুণপোকা, যা শলোমনের লাঠি কূরে খাচ্ছিল, জ্বীনদেরকে তার মৃত্যুর কথা জানাল। যখন শলোমন মাটিতে পড়ে গেল তখন জ্বীনেরা বুঝতে পারল যে, যদি ওরা অদৃশ্য বিষয় জানত তাহলে ওরা এতকাল অপমানকর শাস্তিতে বাঁধা থাকত না।’(৩৪:১২-১৪)

শলোমনের সমাধি কমপ্লেক্স, জেরুজালেম।
চল্লিশ বৎসর (৯৬৪-৯২৪ BCE) রাজত্বের পর শলোমন মারা গিয়েছিলেন। এসময় তার বয়স হয়েছিল উনসত্তুর বৎসর। তিনি তার রাজত্বকালে সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে সমর্থ হয়েছিলেন। ফলে তার সুসংগঠিত সেনাবাহিনী থাকলেও তাকে কোন যুদ্ধ পরিচালনা করতে হয়নি। তিনি আল্লাহর উপাসনার জন্যে বিখ্যাত স্থাপত্য নির্মাণ করলেও তার জীবদ্দশায় কোন নবী বা ধর্মীয় নেতার সঙ্গে তার যোগাযোগ হয়নি। যে অবদান এই জ্ঞানী ব্যক্তিটি তার জাতি এবং জগতের সামনে স্থাপন করে গেছেন তা মূলতঃ তার সুবিশাল রাজ্য এবং ধন-সম্পদ। 

মূসার সময় যাদুবিদ্যার প্রচলন কমে যায় কেননা তিনি মানুষের সামনে এমন সব নিদর্শণ উপস্থাপন করেছিলেন যা মানুষকে মহান আল্লাহর অসীম ক্ষমতা সম্পর্কে অবগত করেছিল। কিন্তু তার মৃত্যুর পর যাদু বিদ্যার প্রচলন আবার বেড়ে গেল। 

বাবিল শহরে মানুষের বেশে হারুত ও মারুত নামে দু’জন ফেরেস্তা যাদুবিদ্যা শিক্ষা দিত এবং সাথে সাথে মানুষকে যাদুবিদ্যার কূফল সম্পর্কে এই বলে সতর্ক করত, ‘আমরা তো তোমাদের উপর পরীক্ষা স্বরূপ। তোমরা অবিশ্বাস কোরও না’

এই দু’জনের কাছ থেকে মানুষ এমন বিষয় শিক্ষা করত যা স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটাতে পারত শুধু, আল্লাহর নির্দেশ ছাড়া কারও কোন ক্ষতি করতে পারত না।

শলোমনের সময় শয়তান জ্বীনেরা বাবিলের (সাবার) লোকদেরকে সেই যাদু শিক্ষা দিত যা হারুত ও মারুতের উপর অবতীর্ণ হয়েছিল। সেখানকার লোকেরা এসব জ্বীনদের কথা মেনে চলত। যদিও তাদের কাছে থেকে তারা যা শিক্ষা করত তা তাদের ক্ষতিসাধনই করত, আর কোন উপকারে আসত না। আর তারা ভাল করেই জানত যে, যে-কেউ তা কিনবে পরকালে তার কোন অংশ নেই।

হারুত-মারুত বাবিলের একটি কূপে বন্দী।
শলোমন তাই হারুত ও মারুতকে বাবিলের একটি কূপে বন্দী করে রেখেছিলেন এবং প্রচলিত এসব যাদুবিদ্যার বইগুলো সংগ্রহ করে তার সিংহাসনের নীচে প্রোথিত রেখেছিলেন। তার মৃত্যুর পর শয়তান জ্বীনেরা তার সিংহাসনের নীচ থেকে সেগুলো তুলে নিয়ে এল। অতঃপর জনসম্মুখে বইগুলো প্রদর্শণপূর্বক প্রচার করল যে, শলোমন এসব যাদুবলে রাজত্ব করতেন। 

এ বিষয়ে কোরআন জানায়- ‘আর শলোমনের রাজত্বে শয়তানেরা যা আওড়াত তারা (সাবাবাসীরা) তা মেনে চলত। শলোমন কূফর করেনি, বরং শয়তানই কূফর করেছিল। তারা মানুষকে শিক্ষা দিত (সেই) যাদু যা বাবিল শহরের দুই ফেরেস্তা হারুত ও মারুতের উপর অবতীর্ণ হয়েছিল। তাই ‘আমরা তো তোমাদের উপর পরীক্ষা স্বরূপ। তোমরা অবিশ্বাস কোরও না’-এ না বলে তারা কোন মানুষকে শিক্ষা দিত না। 

এ দু’জনের কাছ থেকে তারা এমন বিষয় শিক্ষা করত যা স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটাতে পারত শুধু, আল্লাহর নির্দেশ ছাড়া কারও কোন ক্ষতি করতে পারত না। তাই তারা যা শিক্ষা করত তা তাদের ক্ষতিসাধনই করত, আর কোন উপকারে আসত না। আর তারা ভাল করেই জানত যে, যে-কেউ তা কিনবে পরকালে তার কোন অংশ নেই। আর যদি তারা জানত তারা যার বিনিময়ে নিজেদের বিক্রি করছিল তা কত নিকৃষ্ট! (২:১০২)

সমাপ্ত।
ছবি: Wikipedia, dailymail, blog.radical, phoenixmasonry.

Source:

  • Qur'an;
  • The Bible, the Quran, and the Talmud by Dr, G. Well;
  • Book of Chamis, by Husein ibn Muhammed.



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন