pytheya.blogspot.com Webutation

১২ মার্চ, ২০১২

Muhammad: মদিনায় আবু আইয়ূবের গৃহে অবস্থান।


মদীনায় নানা গোত্র নানা দল। সবাই মুহম্মদ (Muhammad)-কে আশ্রয় দিয়ে সৌভাগ্যবান হতে চাইল। পথিমধ্যে উটের লাগাম ধরে জনে জনে অনুরোধ করতে লাগল, ‘হে হযরত! আমাদের গৃহে অবস্থান করুন। আমি আপনার, গৃহ আপনার।’ 
এমতাবস্থায় মুহম্মদ কাকে সন্তুষ্ট করবেন? 
সুতরাং তিনি বললেন, ‘এই উট পরিচালিত হচ্ছে।’
উট চলতে থাকল। 

অবশেষে শহরের দক্ষিণভাগে বনি নাজ্জার গোত্রের মহল্লায়, একটি প্রশস্ত স্থানে এসে উট ইতস্ততঃ করতে থাকল। কিন্তু মুহম্মদ উটের পিঠ অবতরণ করলেন না। এতে উট সম্মুখে অগ্রসর হল এবং কিছুদূর এগিয়ে পুনঃরায় ঘুরে আগের জায়গায় এসে হাঁটু গেঁড়ে বসে পড়ল। মুহম্মদ উটের পিঠ থেকে অবতরণ করতে করতে বললেন, ‘বনি নাজ্জার বংশ আমার পিতামহ আব্দুল মুত্তালিবের মাতুল গোত্র। আমি এতদ্বারা তাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে চাই। আল্লাহ চান তো এই আমার আশ্রম।’

আবু আইয়ূব- প্রকৃত নাম খালিদ ইবনে সাদ ইবনে কুলায়াব। কিন্তু সবাই তাকে আবু আইয়ূব অর্থাৎ আইয়ূবের পিতা বলে জানত। কাছেই ছিল এই আনছারীর বাসগৃহ। তিনি ছুটে এসে উটের লাগাম হাতে তুলে নিলেন। আর সেইসময় তার চোখে মুখে এমনভাব ফুটিয়ে তুললেন তিনি যেন দুনিয়ার সর্বাপেক্ষা মূল্যবান বস্তুটি হাতে তুলে নিয়েছেন। তারপর যখন তিনি মুহম্মদ সমীপে নিবেদন করলেন, ‘উটের পালানগুলি আমি নিয়ে যাব?’-তখন তিনি মৃদু হেসে সম্মতি দিলেন। এসময় নাজ্জার বংশের অন্যান্য লোকেরা এসে তাকে তাদের আতিথ্য গ্রহণের জন্যে অনুরোধ করতে লাগল। এতে তিনি হাস্য সহকারে বললেন, ‘পালান যেখানে সওয়ারও সেখানে।’

আবু আইয়ূবের গৃহটি দ্বিতল। মুহম্মদ নীচ তলাতেই অবস্থান গ্রহণ করলেন। যদিও গৃহস্বামী উপরিতল গ্রহণ করতে বিস্তর অনুরোধ করেছিলেন। 

রাত হল। হযরত বিশ্রাম করতে গেলেন তখন আবু আইয়ূবও উপর তলাতে চলে গেলেন। অতঃপর যখন তিনি দ্বার বন্ধ করলেন, তখন তার মাথায় এক চিন্তা এল। তিনি স্ত্রীকে বললেন, ‘আমাদের উপর ধিক্কার! এ আমরা কি করলাম, আল্লাহর রসূল নীচে আর আমরা তার উপর! আমরা তার উপর দিয়ে হাঁটা-চলা করি কিভাবে!’

তারা খুব চিন্তিত হয়ে পড়লেন এবং স্থির করতে পারলেন না কি করবেন। সুতরাং সারারাত্রি তারা জেগে বসে রইলেন এবং অত্যন্ত সতর্কতার সাথে দেয়ালের পাশ দিয়ে চলাফেরা করলেন।

প্রভাতে আবু আইয়ূব মুহম্মদকে বললেন, ‘হে হযরত! আমরা সারারাত ঘুমাতে পারিনি।’
তিনি বললেন, ‘কেন?’
আইয়ূব বললেন, ‘আল্লাহর রসূল নীচে আমরা তার উপরে। আল্লাহর রসূলের উপরে আমরা হাঁটাচলা করি কিভাবে? আর এতে যদি ওহী নাযিলে বিঘ্ন হয়? তাহলে তো আমরা চিরতরে ধ্বংস হয়ে যাব। সুতরাং আপনি উপরতলাতেই অবস্থান করুন।’

মুহম্মদ ভাবলেন উপরতলাতে অবস্থান গ্রহণে ভক্তবৃন্দের আসা যাওয়াতে গৃহস্বামীর নানাবিধ অসুবিধা হতে পারে। সুতরাং তিনি এই প্রস্তাবে সম্মত হলেন না, বললেন, ‘হে আইয়ূব! এতে চিন্তিত হইও না। আমি নীচের তলাতেই থাকতে চাই কারণ অনেক লোক আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন।’
তার এই অভিপ্রায় জানতে পেরে আবু আইয়ূব বললেন, ‘আমরা হযরতের ইচ্ছার উপর নিবেদিত হলাম।’

মুহম্মদ নীচ তলাতেই রইলেন। আর ভক্ত দম্পতি নিয়মিতভাবে তার আহার প্রস্তুত করে দিতে লাগলেন। তিনি খাদ্য গ্রহণ করার পর যা অবশিষ্ট থাকত, ঐ পরিবার তা পরমানন্দে আহার করে ফেলতেন। 

একদিন ঘটনাক্রমে উপরতলায় একটি পানির পাত্র ভেঙ্গে গেল, দম্পতির আশঙ্কা হল-পানি চূঁইয়ে নীচে গেলে হযরতের কষ্ট হতে পারে- এই আশঙ্কায় তারা তাদের একমাত্র কম্বল দিয়ে সেই কর্দমাক্ত পানি শুকিয়ে ফেললেন। এ ধরণের সদা সন্ত্রস্তভাব দেখে মুহম্মদ অবশেষে উপর তলাতেই আশ্রয় গ্রহণ করলেন।

আবু আইয়ূবের গৃহে মুহম্মদ প্রায় সাত মাস অবস্থান করেছিলেন।

সমাপ্ত।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন