pytheya.blogspot.com Webutation

১৪ মার্চ, ২০১২

Bani Israel: মান্না-সলোয়া এবং বনি ইস্রায়েল।

ইস্রায়েলীরা (Bani Israel) মূসা (Moses) ও হারুণের বিরুদ্ধে আবারও অভিযোগ উত্থাপন করল। তারা বলল, ‘মিসরে থাকতেই আমরা কেন মরলাম না? সেখানে আমরা মাংসের হাঁড়ি সামনে নিয়ে পেট ভরে মাংস খেতাম। আর এখন মাংস দূরের কথা অনাহারে মরতে বসেছি আমরা।’

লোকদের এই অভিযোগ সম্বলিত প্রশ্নবানে জর্জরিত মূসা আল্লাহর কাছে আর্জি পেশ করলেন। আল্লাহ বললেন, ‘তুমি তাদের জানাও যে আগামীকাল থেকেই তারা মাংস খেতে পারবে। আর তারা তা খাবে তাদের ইচ্ছেমত পেট ভরে।’
মূসা বললেন, ‘তাদের গরু-ভেড়া সব জবাই করলেও তো তা তাদের পক্ষে যথেষ্ট হবে না।’
তিনি বললেন, ‘তা তুমি স্বচক্ষেই দেখবে। আল্লাহ তো ক্ষমতায় মহান। কাল থেকে তোমরা সন্ধ্যা বেলায় খাবে পেট ভরে মাংস-সালোয়া (ভারুই পাখির মাংস) এবং সকালে খাবে রুটি-মান্না।’

বনি ইসায়েলীরা মান্না সংগ্রহ করছে।
পরদিন হাজারে হাজারে ভারুই পাখি ইস্রায়েলীদের ছাউনি এলাকা ছেয়ে ফেলল। পরে সমুদ্রের দিক থেকে একটা বাতাস বইল, আর সেই বাতাস ঐসব পাখি ঠেলে এনে ছাউনির চারপাশে বিশাল এলাকা জুড়ে এমনভাবে ফেলে দিল যে, সেগুলো মাটি ঢেকে ছড়িয়ে রইল। লোকেরা অনায়াসে ঐ পাখি ধরে আনতে লাগল।

আর মান্না প্রতিদিন রাত্রে আকাশ থেকে শিশিরের মত করে মাটিতে পতিত হত। যা ছিল সাদাটে মাছের আঁশের মত পাতলা এবং দেখতে ছিল পড়ে থাকা তুষের মত, আর স্বাদ ছিল মধু দেয়া পিঠের মত। সূর্যের তাপে এটা গলে যেত। প্রত্যুষে বনি- ইস্রায়েলীরা এই মান্না সংগ্রহ করত এবং যাতা কিম্বা হামান দিস্তায় গুঁড়ো করে রুটি বানিয়ে সেঁকে খেত।

ইস্রায়েলীদের উপর নির্দেশ ছিল-প্রতিদিন প্রতি জনের জন্যে যে পরিমান খাদ্যের প্রয়োজন, (যা নির্ধারিত ছিল এক ওমর বা এক কেজী আট’শ গ্রাম) তারা প্রত্যেকে শুধুমাত্র ততটুকুই সংগ্রহ করবে এবং পরের দিনের জন্যে তার কোন কিছুই রেখে দেবে না। কেবলমাত্র বিশ্রামবারের আগের দিন তারা প্রত্যেকে দ্বিগুণ পরিমান সংগ্রহ করবে। কারণ বিশ্রামবারের দিন কোন মান্না-সালোয়া (al-Mann wa al-Salwa) আল্লাহ পাঠাবেন না। কিন্তু তারা ভাবল প্রতিদিন খাদ্য সংগ্রহের পরিবর্তে একদিনে যদি বেশী পরিমানে খাদ্য সংগ্রহ করে রাখা যায় তাহলে বেশ কিছুদিন বসে বসে খাওয়া যাবে, আর দৈনিন্দন খাদ্য সংগ্রহের পরিশ্রম থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে। তারা তাদের পরিকল্পণা মত একদিন প্রত্যেকে প্রয়োজনের অতিরিক্ত খাদ্য সংগ্রহ করল এবং দিনের প্রয়োজন মেটানোর পর অবশিষ্টাংশ পরদিনের জন্যে রেখে দিল। পরদিন প্রত্যুষে তারা মান্না সংগ্রহের জন্যে বের হল না। অতঃপর তারা খাবার তৈরীর সময় দেখল জমাকৃত সমস্ত মান্না নষ্ট হয়ে গেছে। সুতরাং সেদিন তাদের অনাহারে থাকতে হল। এভাবে আল্লাহর নির্দেশ অমান্য করে ইস্রায়েলীরা তাঁর কোন অনিষ্ট করতে পারেনি-বরং নিজেদেরই অনিষ্ট করল।

বনি ইসায়েলীরা মান্না সংগ্রহ করছে।
কোরআনে রয়েছে- ‘আমি তোমাদের উপর মেঘ দ্বারা ছায়া প্রদান করেছিলাম এবং তোমাদের জন্যে মান্না-সালোয়া প্রেরণ করেছিলাম, (বলেছিলাম) তোমাদের যে জীবিকা দান করলাম সেই পবিত্র বস্তু হতে খাও এবং তারা আমার নির্দেশ অমান্য করে (আমার) কোন অনিষ্ট করেনি, বরং নিজেদেরই অনিষ্ট করেছিল।’-(২:৫৭)

মূসার নির্দেশে হারুণ এক ওমর পরিমান মান্না (manna) তুলে রেখেছিলেন পরবর্তী বংশধরদের জন্যে যাতে তারা দেখতে পায় মহান আল্লাহ মিসর থেকে ইস্রায়েলীদের বের করে আনার পর মরু এলাকায় কি খাবার তাদেরকে খেতে দিয়েছিলেন। এই মান্না একটি পাত্রে সাক্ষ্য তাম্বুর মধ্যে দর্শণ রুটির টেবিলের উপর রাখা হয়েছিল।
বনি-ইস্রায়েলীদের প্রতি আল্লাহর এত এত অনুগ্রহের পরও তারা বারবার তাদের অবাধ্যতা প্রকাশ করেছে। তাদেরকে সমস্যার মধ্যে নিয়ে আসার জন্যে মূসাকে দোষারোপ করেছে। অনেকে অনেকবার খোলাখুলিভাবে তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছে। এমনকি তারা মিসর ছেড়ে আসার জন্যে দুঃখ প্রকাশও করেছে এবং অনেকে সেখানে ফিরে যাবার ইচ্ছেও প্রকাশ করেছে- যেখানে তারা গরুর মাংস, রসূন, পেঁয়াজ ও তরমুজ ইত্যাদি খেতে পারত।

প্রতিদিন মান্না-সালোয়া খেতে খেতে ইস্রায়েলীদের একসময় মুখে অরুচি এসে গেল। তারা সমবেতভাবে মূসার কাছে এসে ক্ষোভের সাথে বলল, ‘মান্না ছাড়া আমাদের চোখে আর কিছুই পড়ছে না। হে মূসা! একই রকম খাবারে আমরা কখনও ধৈর্য্য রাখতে পারব না, সুতরাং তুমি তোমার প্রতিপালকের কাছে আমাদের জন্যে প্রার্থনা কর, তিনি যেন শাক-সবজি, কাঁকুড়, গম, রসূন, ডাল ও পেঁয়াজ আমাদের জন্যে মাটিতে উৎপন্ন করেন।’

বার বার এই বিদ্রোহী লোকদের আশ্বস্ত করতে করতে মূসা ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন। তাই এসময়  তিনি রাগান্বিত হয়ে বললেন, ‘তোমরা কি ভাল জিনিস (মান্না-সালোয়া) রেখে খারাপ জিনিসের সাথে তা বদল করতে চাও? তবে যে কোন শহরে যাও। তোমরা যা চাও তা সেখানে পাবে।’

তাহ্ প্রান্তরের সীমান্তবর্তী এলাকায় একটি শহর ছিল। মূসা এই শহরটি নির্দেশ করেই তার এই উক্তি করেছিলেন। যদিও তিনি জানতেন চল্লিশ বৎসর পূর্ণ হবার পূর্বে ইস্রায়েলীরা শতচেষ্টা করেও আবদ্ধ ঐ প্রান্তর থেকে বেরিয়ে যেতে পারবে না।

লোকেরা গুণ গুণ করতে থাকল। তখন মূসা শান্তস্বরে সমবেত ইস্রায়েলীদেরকে বললেন, ‘স্মরণ কর, আল্লাহর সেই অনুগ্রহ- তোমাদের প্রতি। এই অনুগ্রহ তিনি করেছিলেন ফেরাউনের লোকজনের হাত হতে তোমাদেরকে মুক্ত করতে। তারা তোমাদের উপর নিদারুণ নিপীড়ন চালাত; তোমাদের পুত্র সন্তানদেরকে হত্যা করত এবং জীবিত রাখত তোমাদের কন্যাদেরকে।’
কোরআনে রয়েছে- ‘আর তোমরা যখন বলেছিলে, ‘হে মূসা! একই রকম খাবারে আমরা কখনও ধৈর্য্য রাখতে পারব না, সুতরাং তুমি তোমার প্রতিপালকের কাছে আমাদের জন্যে প্রার্থনা কর, তিনি যেন শাক-সবজি, কাঁকুড়, গম, রসূন, ডাল ও পেঁয়াজ আমাদের জন্যে মাটিতে উৎপন্ন করেন।’ 
মূসা বলল, ‘তোমরা কি ভাল জিনিস (মান্না-সালোয়া) রেখে খারাপ জিনিসের সাথে তা বদল করতে চাও? তবে যে কোন শহরে যাও। তোমরা যা চাও তা সেখানে পাবে।’-(২:৬১)

মূসা বলেছিলেন তার লোকজনদিগকে, ‘স্মরণ কর, আল্লাহর সেই অনুগ্রহ- তোমাদের প্রতি। এ অনুগ্রহ তিনি দিয়েছিলেন ফেরাউনের লোকজনের হাত হতে তোমাদের মুক্ত করতে। তারা তোমাদের উপর নিদারুণ নিপীড়ন চালাত; তোমাদের পুত্রসন্তানদের হত্যা করত এবং জীবিত রাখত তোমাদের নারীদের।(১৪:৬)

Exodus states that the Israelites consumed the manna for 40 years, starting from the fifteenth day of the second month (Iyar 15)- Exodus 16:1-4, but that it then ceased to appear once they had reached a settled land, and once they had reached the borders of Canaan (inhabited by the Canaanites).-Exodus 16:35. Indeed, according to Joshua ben Levi, the manna ceased to appear at the moment that Moses died.-Jewish Encyclopedia.

সমাপ্ত।

ছবি: Wikipedia.

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন